জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, ঢাকা এবং বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড অধিভুক্ত এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আলহাজ্ব মকবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ। মানবিক গুণাবলি সমৃদ্ধ, জ্ঞানের আলোয় উদ্ভাসিত মানবসম্পদ তৈরির অনন্য এ প্রতিষ্ঠানটি গুণগত মানের শিক্ষাদানে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

বিশিষ্ট শিক্ষাদ্যোক্তা, কল্যাণব্রতী শিল্পপতি, উদারপ্রাণ সমাজসেবী, সাবেক এমপি ও সিআইপি আলহাজ্ব মকবুল হোসেন গুণগত শিক্ষার পাদপীঠ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন এ কলেজটি। মকবুল হোসেন ঢাকা মহানগরীতে গড়ে তুলেছিলেন  উচ্চশিক্ষার বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান, যা সগৌরবে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে চারদিকে দীপ্তি ছড়াচ্ছে, অকাতরে বিলিয়ে যাচ্ছে জ্ঞানের আলো। এর মধ্যে আলহাজ্ব মকবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ অন্যতম।

১৯৯৩ সালে প্রতিষ্ঠিত এমপিও ভুক্ত কলেজটি প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্ব মকবুল হোসেনের সহধর্মিণী কলেজ পরিচালনা পর্ষদের  সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম ফাতেমা তাহেরা খানমের  প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধান ও দিকনির্দেশনায়  এইচ.এস.সি (সাধারণ ও বি.এম), ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিগ্রি (পাস), তিনটি বিষয়ে প্রফেশনাল অনার্স সহ মোট সতেরটি বিষয়ে অনার্স, এমবিএ প্রফেশনাল সহ মোট ছয়টি বিষয়ে মাস্টার্স, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন এইচ.এস.সি ও ডিগ্রি কোর্স সমূহে প্রায় ১৩০০০ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে ।

আলহাজ্ব মকবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন আ ফ ম রেজাউল হাসান। শিক্ষা বিস্তারের স্বপ্ন ও অঙ্গীকার নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় আলহাজ্ব মকবুল হোসেন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ। এ প্রতিষ্ঠানে অভিজ্ঞ ও তরুণ শিক্ষকের সমন্বয়ে প্রতিশ্রুতিশীল শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা নিয়মিত পাঠদানের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মেধা-মনন ও সৃজনশীলতা বিকাশে সহপাঠ্যক্রমিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে।

বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের আধুনিক প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত করার জন্য কলেজটিতে গড়ে তোলা হয়েছে আধুনিক কম্পিউটার ল্যাব, ইলেকট্রিক্যাল ল্যাব, ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট ল্যাব এবং কলেজ ক্যাম্পাসকে করা হয়েছে ওয়াই-ফাই সমৃদ্ধ। সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে কলেজটিকে সিসি ক্যামরার আওতায় আনা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিতে রয়েছে আধুনিক বিজ্ঞানাগার, যেখানে শিক্ষার্থীরা হাতে-কলমে বিজ্ঞান শিক্ষা গ্রহণ করতে পারছে। আরও রয়েছে সমৃদ্ধ ডিজিটাল লাইব্রেরি, যেখানে শিক্ষার্থীরা পাঠ্যক্রমিক শিক্ষার পাশাপাশি সৃজনশীল শিক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে নিজেদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ পায়।

 


 

কলেজের বৈশিষ্ট্য ও সুবিধা সমূহ

 

*মনোরম পরিবেশ ও ধূমপানমুক্ত নিজস্ব ক্যাম্পাস।

* সুযোগ্য,দক্ষ,মেধাসম্পন্ন ও নিবেদিত শিক্ষকমণ্ডলী।

*ডিজিটাল কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি, সেমিনার ও বঙ্গবন্ধু কর্ণার ।

*নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তায় সম্পূর্ণ কলেজ সার্বক্ষণিক সিসিটিভি আওতাভুক্ত ।

*শিক্ষার্থীদের জন্য সার্বক্ষণিক ফ্রি ইন্টারনেট সুবিধা

*শতভাগ মাল্টিমিডিয়া শ্রেণিকক্ষ।

*দুটি অত্যাধুনিক কম্পিউটার ল্যাব,

*ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট এর অধীন আধুনিক ফ্রন্ট অফিস,

ফুড এন্ড বেভারেজ প্রোডাকশন,ফুড এন্ড বেভারেজ সার্ভিস এবং হাউসকিপিং ল্যাব ।

*সহশিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের পূর্ণ মানসিক বিকাশে সহায়তা।

*রোভার স্কাউটিং কার্যক্রম

*বছরের শুরুতেই পাঠ পরিকল্পনা, রুটিন,সিলেবাস এবং শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ তত্ত্বাবধানে গ্রপভিত্তিক গাইড শিক্ষা  কার্যক্রম শুরু হয়।

*বিভাগ ভিত্তিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল ভিজিট এবং দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন ও দেশ বিদেশে শিক্ষা সফরের ব্যবস্থা করা হয়।

*যথোপযুক্ত কর্মজীবন প্রাপ্তির লক্ষ্যে কলেজে যুক্ত আছে Career & Placement   Center   (CPC) যার মাধ্যমে  শিক্ষার্থীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে আমরা সর্বদা সচেষ্ট।